মোবাইল ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার ডাউনলোড – ফ্রি


মোবাইল ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার ডাউনলোড

মোবাইল ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার ডাউনলোড

 

আমার মতও আপনিও যদি মোবাইলের সাহায্যে ইউটিউব এর সকল কাজ করে থাকেন তাহলে এই পোষ্টটি আপনার জন্য। কারণ আজকে আমি আপনাদের মাঝে শেয়ার করবো মোবাইলের সাহায্যে প্রফেশনাল ভিডিও এডিটিং করার জন্য সবথেকে ভালো মোবাইল ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার। সফটওয়্যারটি ব্যবহার করে আপনি খুব সহজে প্রফেশনাল ভিডিও এডিটিং করতে পারবে। পাশাপাশি সফটওয়্যারটি আপনার সকল এন্ড্রয়েড মোবাইল ও আইফোনে ব্যবহার করতে পারবেন। আপনি খুব সহজে সফটওয়্যারটি বিনামূল্যে ডাউনলোড করতে পারবেন সফটওয়্যার সম্পর্কে বিস্তারিত বিবরণ ও ডাউনলোড অপশন নিচে দেওয়া আছে।

 

হাতে গনা বেশ কিছু দিন আগে ভিড়িও এডিটিং করার জন্য প্রয়োজন হতো হাই কনফিগারেশন বড় বড় কম্পিউটার ও দামি দামি ল্যাপটপ। বর্তমান সময়ের স্মার্টফোনগুলো অনেক শক্তিশালী পাশাপাশি অনেক ভালো মোবাইল ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার পাওয়া যায়। এই কারণে বেশিরভাগ মানুষ দামে কম্পিউটার ল্যাপটপ না কিনে মোবাইলের সাহায্যে ভিডিও এডিটিং করতে পছন্দ করে। পাশাপাশি মোবাইলের সাহায্যে ভিডিও এডিটিং করা অনেক সহজ কম্পিউটার ও ল্যাপটপ এর তুলনায়। সব থেকে মজার বিষয় হলো মোবাইলে ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার ব্যবহার করার জন্য কোন প্রকার পূর্বের দক্ষতা প্রয়োজন হয় না। তারমানে কোন প্রকার দক্ষতা ছাড়াই ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারবেন। একটা বিষয় আমাদের মাথায় রাখতে হবে মোবাইল ভিডিও এডিটিং এর কিন্তু একটা সীমাবদ্ধতা আছে। কিন্তু কম্পিউটারে ভিডিও এডিটিং এর কোনো সীমাবদ্ধ নেই আপনি যা খুশি তা করতে পারবেন। পাশাপাশি মোবাইল থেকে অনেক বেশি শক্তিশালী ও অনেক বেশি ফিচার থাকে কম্পিউটার সফটওয়্যার গুলো। আপনার কাছে যদি ভালো কম্পিউটার না থাকে তাহলে আমি মনে করি মোবাইল ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার ব্যবহার করা ভালো।

 

KineMaster Video Editor

 

 

KineMaster সফটওয়ারটি হল মোবাইলের সবথেকে ভালো ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার। পাশাপাশি এই সফটওয়ারটি ডিজাইন অনেক ভালো আশা করি আপনার কাছে অনেক বেশী ভালো লাগবে। সেই সাথে রয়েছে এর বেশ কিছু পাওয়ারফুল ফিচার! Drag-n-drop টেকনিকের মাধ্যমে বিভিন্ন মিডিয়াতে ফাইল ইম্পোর্ট করা যায়। প্রোফেশনাল স্টাইলে ভিডিও এডিট করা যাবে খুব সহজেই! বিভিন্ন রকমের ট্রানজিশন ইফেক্ট রয়েছে। অনেকগুলো ভিডিওর মাঝেও একাধিক ট্রানজিশন এড করতে পারবে। সেই সাথে রয়েছে সাবটাইটেল যুক্ত করার সুবিধাও! তুমি খুব সহজে লেয়ারের পর লেয়ার যুক্ত করে টেক্সট, গ্রাফিক্স, ইমেজ এমনকি নিজের হ্যান্ড রাইটিংও এড করতে পারবে৷ পাশাপাশি কালার এডজাস্ট করা, ব্রাইটনেস বাড়ানো কমানো, স্পিড, টিউনিং-সব ধরণের সুবিধা এখানে পাওয়া যাবে৷ KineMaster সফটওয়ারটি অসংখ্য ভালো ভালো ফিচার আছে ফিচারগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত ভালোভাবে জানার জন্য তোমাকে সফটওয়ারটি ব্যবহার করতে হবে। KineMaster মোবাইল ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারব।

 

মোবাইল ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার ডাউনলোড ও ইন্সটল করার নিয়ম :- সফটওয়্যার আপনি খুব সহজেই ডাউনলোড করতে পারবেন। মোবাইলে ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার ডাউনলোড করার জন্য সবার প্রথমে নিচে থাকা ডাউনলোড অপশনে ক্লিক করতে হবে। ডাউনলোড অপশনে ক্লিক করার সাথে সাথে আপনাকে নিয়ে যাবে গুগল ড্রাইভের। গুগল ড্রাইভে নতুন একটি ডাউনলোড অপশন পেয়ে যাবেন। নতুন ডাউনলোড অপশনে ক্লিক করার কিছুক্ষণ সময় ভিতরে সফটওয়্যারটি ডাউনলোড শুরু হয়ে যাবে। আপনার ইন্টারনেট স্পিড যদি মোটামুটি ভালো হয়ে থাকে তাহলে 5 থেকে 10 মিনিটের ভিতরে সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করতে পারবেন। সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করার পরে সিম্পল ইন্সটল করে ফেলবেন কোন ঝামেলা হবে না। তারপরও যদি কোনো কারণে সফটওয়ারটি ডাউনলোড অথবা ইন্সটল করতে আপনার কোন প্রকার সমস্যা হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনার সমস্যার কথা নিচে কমেন্টে মাধ্যমে আমাদের টিমকে জানাবেন।

 

সফটওয়্যার টি নামKineMaster
ডেভলপারের নামKineMaster Corporation ডেভেলপার
মোট ডাউনলোড১০০,০০০,০০০+
সফটওয়্যার সাইজ90.9 MB
বর্তমান ভার্সন4.16.5.18945.GP ভার্সন
লাস্ট আপডেট
১৪ জানুয়ারী, ২০২১
এন্ড্রয়েড ভার্সন6.0 এবং বেশি ভার্সন

 

 

কাইনমাস্টার সফটওয়্যারটি ব্যবহার করে আপনি মোটামুটি সব ধরনের ভিডিও এডিটিং করতে পারবেন। আমি নিজে আমার সকল ইউটিউব ভিডিও এডিটিং করার জন্য কাইনমাস্টার মোবাইল ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার ব্যবহার করি। আপনার মোবাইলে যদি মিনিমাম 3GB RAM অথবা 4GB RAM থাকে তাহলে মোটামুটি ভালই ভিডিও এডিটিং করতে পারবেন KineMaster সফটওয়্যারটি ব্যবহার করে। KineMaster ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার ব্যবহার করে আপনি 4K ভিডিও এডিটিং করতে পারবেন। 4K ভিডিও এডিটিং করার জন্য আপনার মোবাইলে মিনিমাম 8GB RAM অথবা 12GB RAM থাকতে হবে। তাহলে আপনি কোন প্রকার সমস্যা ছাড়াই ভিডিও এডিটিং করতে পারবে।

 

ভিডিও এডিটিং নিয়ে যারা একটু হলেও ঘাঁটাঘাঁটি করেছেন তাদের কাছে কাইনমাস্টার নামটা অনেক জনপ্রিয় একটি নাম। সাধারণ ভিডিও এডিটিং, যেমন ট্রিমিং, ক্রপিং থেকে শুরু করে ভিডিও লেয়ারিং এর মত এডভান্সড সব ফিচারে ঠাসা অ্যাপটি। কাইনমাস্টারে রয়েছে অডিও ফিল্টার, ভিডিও ট্রান্সজিশান, ভিডিও ইফেক্ট এবং আরো অনেককিছু। এত ফিচার আছে যে ফিচারগুলো দেখতে দেখতে আপনার বেশ কিছুদিন সময় লাগবে। যে কারণে সফটওয়ারটি বেশি খ্যাতি অর্জন করেছে, এর মধ্যে প্রধান হলো ক্রোমা-কি ফিচারটি। এই ফিচার ব্যবহার করে ভিডিওতে থাকা গ্রিন স্ক্রিন রিমুভ করে পছন্দসই ভিডিও বা ছবি এড করা যায়। এই ফিচারটি জন্য এই সফটওয়ারটি বেশিরভাগ ইউজার ব্যবহার করে খুব সহজে। তবে মোবাইল জন্য কাইনমাস্টার অ্যাপটি ভিডিও এডিটর হিসেবে ব্যবহারকারীদের পছন্দের শীর্ষেই অবস্থান করছে। আপনার কাছে কাইনমাস্টার মোবাইল ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার কিরকম লেগেছে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন ধন্যবাদ।

 

মোবাইল ভিডিও এডিটিং টিউটোরিয়াল

 

আপনি যদি আগে কখনো ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার না ব্যবহার করে থাকেন তাহলে KineMaster সফটওয়ারটি ব্যাবহার করতে আপনার মোটামুটি কিছুটা সমস্যা হবে। এই কারণে আপনাকে KineMaster ভিডিও এডিটিং শিখতে হবে। আপনি চাইলে নিচের KineMasterভিডিও এডিটিং টিউটোরিয়ালগুলো দেখে KineMaster ভিডিও এডিটিং শিখতে পারেন।আপনি যদি মোবাইলের সাহায্যে প্রফেশনাল ভিডিও এডিটিং শিখতে চান তাহলে নিচের পাঁচটি টিউটোরিয়াল ভিডিও মনোযোগ দিয়ে সম্পূর্ণ দেখুন। তাহলে খুব সহজেই মোবাইলের সাহায্যে প্রফেশনাল ভিডিও এডিটিং শিখতে পারবেন। আশাকরি ভিডিওগুলো আপনার কাছে অনেক বেশী ভালো লাগবে। তাহলে এখনি দেরি না করে নিচের মোবাইল ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার টিউটোরিয়াল ভিডিওগুলো মনোযোগ দিয়ে দেখুন।


 Related Post :- মোবাইল অডিও এডিটিং


নিচের ভিডিওটিতে আমি আপনাদের দেখিয়েছি মোবাইলের সাহায্যে কিভাবে প্রফেশনাল ভিডিও এডিটিং করতে পারবেন। যারা মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিটিং এর প্রাথমিক বিষয়গুলো শিখতে চান তাহলে এখনি নিচের ভিডিওটি মনোযোগ দিয়ে সম্পূর্ণ দেখুন। নিচে ভিডিওটিতে KineMaster ভিডিও এডিটিং টিউটোরিয়াল দেওয়া আছে।

 

 

নিচের ভিডিওতে আমি আপনাদেরকে দেখিয়েছি মোবাইল ফ্রেম যুক্ত করে কিভাবে স্ক্রিন রেকর্ড ভিডিও তৈরি করবেন পাশাপাশি কিভাবে প্রফেশনাল ভাবে ভিডিও এডিটিং করবেন। মোবাইল ফ্রেম ভিডিও এডিটিং সর্ম্পকে বিস্তারিত ধারণা পেতে চান এখনি নিচের ভিডিওটি মনোযোগ দিয়ে সম্পূর্ণ দেখুন। মোবাইল ফ্রেম ভিডিও এডিটিং কাজটি করার জন্য আপনাকে একটি মোবাইল ফ্রেম এর পিএনজি পিকচার ডাউনলোড করতে হবে। মোবাইল ফ্রেম পিএনজি পিকচার গুগল থেকে খুব সহজেই ডাউনলোড করতে পারবেন। তাহলে এখনি দেরি না করে নিচের ভিডিওটি মনোযোগ দিয়ে সম্পূর্ণ দেখু

 

 

নিচের ভিডিওতে আমি আপনাদেরকে দেখিয়েছি মোবাইল দিয়ে কিভাবে প্রফেশনাল ভিডিও এডিটিং করতে পারবেন। যারা মোবাইল দিয়ে ভিডিও এডিটিং এর প্রাথমিক বিষয়গুলো শিখে ফেলেছেন তাদের জন্য নিচের ভিডিওটি। আসাকরি ভিডিওটি দেখার পরে মোবাইল সাহায্যে খুব সহজে প্রোফেসনাল ভিডিও এডিট করতে পারবেন। নিজের ভিডিওটি যদি আপনার কাছে ভাল লেগে থাকে তাহলে আপনার মূল্যবান মতামত নিচে কমেন্টে মাধ্যমে আমাদেরকে জানাবেন।

 

 

নিচের ভিডিওতে আমি দেখানোর চেষ্টা করেছি মোবাইল দিয়ে কিভাবে একটা ভিডিওতে প্রফেশনাল সিনেমাটিক রূপ দেয়া যায়। আপনি যদি উপরের তিনটি ভিডিও মনোযোগ দিয়ে দেখেন তাহলে আপনার কাছে নিচের ভিডিওটি অনেক সহজ মনে হবে। তাহলে এখনি দেরি না করে নিচের টিউটরিয়াল ভিডিওটি মনোযোগ দিয়ে সম্পূর্ণ দেখুন। নিজের ভিডিওটি যদি আপনার কাছে ভাল লেগে থাকে তাহলে আপনার মূল্যবান মতামত নিচে কমেন্টে মাধ্যমে আমাদেরকে জানাবেন।

 

 

আশাকরি উপরের চারটি ভিডিও মনোযোগ দিয়ে সম্পূর্ণ দেখেছেন। কাইনমাস্টার ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যারটি টিপস-এন্ড-ট্রিকস সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য এখনি নিচের ভিডিওটি মনোযোগ দিয়ে সম্পূর্ণ দেখুন। তাছাড়াও কাইনমাস্টার প্রো সফটওয়্যারটি অসংখ্য গোপন বিষয় শেয়ার করেছি যা আপনার অনেক কাজে লাগবে ভিডিও এডিটিং সময়। আশা করি নিচের ভিডিওটি আপনার কাছে অনেক বেশি ভালো লাগবে। মোবাইলের সাহায্যে ভিডিও এডিটিং করার জন্য সবথেকে ভালো ও জনপ্রিয় সফটওয়্যার এর নাম হলো KineMaster ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার।

 

 

KineMaster ভিডিও এডিটিং টিউটোরিয়াল ভিডিওগুলো আশাকরি আপনাদের কাছে অনেক বেশি ভালো লেগেছে। যদি উপরের ভিডিওগুলো আপনার কাছে ভাল লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আপনার মূল্যবান মতামত আমাদেরকে শেয়ার করবেন। পাশাপাশি মোবাইল ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার ডাউনলোড নিয়ে আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে অবশ্যই নিচের কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাবেন। আমরা সব সময় আপনাকে সাহায্য করবো।

 

আশা করি আজকের মোবাইল ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার ডাউনলোড এই আর্টিকেলটি আপনার কাছে ভালো লেগেছে যদি ভালো লেগে থাকে অবশ্যই আপনার মূল্যবান মতামত নিচে কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন। ইউটিউব সম্পর্কে আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে অবশ্যই প্রশ্নটি নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন। আমরা সব সময় আপনাকে সাহায্য করবো।

 


© 2020 bdyoutubecommunity.com
error: Content is protected !!